Do it yourself বা DIY

উন্নত দেশ গুলোতে বিভিন্ন সার্ভিসিং কাজ গুলো এক্সপেন্সিভ। আর তাই বেশির ভাগ কাজ নিজে নিজে করার চেষ্টা করে। অনেকেরই পারসোনাল গ্যারেজ থাকে, সেখানে বিভিন্ন টুল থাকে। কোন কিছু নষ্ট হলে যেমন স্যানিটারি, ফার্নিচার, গাড়ি, বাইক ইত্যাদির টুকটাক কাজ নিজে নিজেই সেরে নেয়। এবং এটাকে তারা ফান হিসেবেই নেয়। সার্ভিসিং এক্সপেন্সিভের কারণ তাদের দেশে মিনিমাল ওয়েজেজ রয়েছে। ম্যানপাওয়ার এক্সপেন্সিভ। যারা সার্ভিস দেয়, তাদের প্রতারণার আশ্রয় নিতে হয় না।

আমাদের দেশে সার্ভিসিং ম্যানপাওয়ার সস্তা। সার্ভিসিং কখনোই সস্তা বলব না। কারণ যারা সার্ভিস দেয়, এরা প্রতারণার আশ্রয় নেয়। আপনি যদি না বুঝেন কোন বিষয়, আপনার সাথে প্রতারণা করে অনেক বিশাল একটা বিল ধরিয়ে দিবে।

ফ্রিজ, এসি, গাড়ি, বাইক যেটাই হোক না কেন। এসব সম্পর্কে আসলে আমাদের সাধারণ মানুষের বেশি আইডিয়া থাকার কথাও না। আমাদের কোন একটা সমস্যা হয়েছে, আমরা এদের ডাকি। এরপর দেখা গেলো হয়তো ছোট্ট একটা সমস্যা হয়েছে। এরা বিশাল সমস্যা হয়েছে বলে বেশি টাকা চার্জ করবে। কোন পার্টস নষ্ট না হলেও বলবে নষ্ট হয়েছে। আবার যে পার্ট বাহিরে নিজে কিনলে ১০০ টাকায় কেনা যাবে, সে বিল করবে ৫০০ টাকা। এমন আর কি বিষয় গুলো! প্রতিটা পদে পদে প্রতারণা।

কেউ কোন একটা কাজ জানে, ঐটার একটা মূল্য রয়েছে। কারণ তার পেছনে সে সময়, শ্রম এবং টাকা খরচ করেছে। আমরা যেমন সময়, শ্রম এবং টাকা খরচ করে একটা কোর্স করি, ঠিক তেমনি। তার জন্য বলে নাও যে এটা আমার প্রাপ্য। কি দরকার মিথ্যের আশ্রয় নেওয়া, প্রতারণা করা।

অনেকেরই হয়তো এতটুকু সময় হবে না কিছু নষ্ট হলে নিজে নিজে ঠিক করার। ওভারহেড বেড়ে যায়। আবার অনেকে চাইলে নিজে নিজে ছোট খাটো সমস্যা গুলো সমাধান করে নিতে পারেন। বাসায় ছোট ছেলে মেয়ে থাকলে তাদেরও ডেকে নিতে পারেন।

নিজে করতে গেলে হয়তো প্রথম বার সফল হবেন না। পুরো জিনিসটাই নষ্ট হয়ে যাবে। কিন্তু চেষ্টা করলে দেখবেন অনেক সমস্যা নিজেই সমাধান করে ফেলতে পারেন। যেমন বাসার একটা সুইচ নষ্ট হয়েছে, নতুন একটা সুইচ এনে নিজে নিজেই পরিবর্তনের চেষ্টা করতে পারেন। সেইফটি হিসেবে মেইন সুইচ বন্ধ করে নিতে পারেন। পানির কোন ট্যাপ নষ্ট হয়েছে? নতুন আরেকটা কিনে এনে পরিবর্তন করার চেষ্টা করেন। ঠিক মত করতে পারলে আত্মতৃপ্তি পাবেন। এভাবে দেখবেন অনেক কিছু নিজে নিজেই সমাধান করতে পারেন। নিজে নিজে কোন কিছু করার মধ্যে আনন্দ থাকে।

নিজে নিজে কোন কিছু করাকে ইংরেজিতে বলে Do it yourself বা DIY। ইউটিউবে প্রচুর DIY ভিডিও পাবেন। নিজের কাজ নিজে করতে পারলে অনেক প্রতারণা থেকে বেঁচে যাবেন! আবার এটা সুন্নাহ!

Leave a Reply