প্রোগ্রামিং করতে গণিত ভীতি

Last Updated on November 22, 2021

প্রোগ্রামিং করতে কি গণিতে ভালো হতে হয়? যারা প্রোগ্রামিং শুরু করতে চায় বা কম্পিউটার সাইন্সে পড়তে চায়, তাদের অনেকের মাথায় এ প্রশ্নটা উঁকি দেয়। এ সম্পর্কে বলার আগে দুই একটা বিষয় সম্পর্কে বলে নেই।
কোন কিছু আমাদের কাছে কঠিন লাগলে তা আমরা ছেড়ে দেই। এতে নিজেদেরই ক্ষতি করি।

কোন একটা বিষয়ে আমরা যত সময় ব্যয় করব, ঐ কাজটা করার জন্য আমাদের মস্তিষ্কের যে অংশটি সাহায্য করে, সে অংশ তত বড় হয়। আর মস্তিষ্কের ঐ অংশ যত বড় হয়, আমরা ঐ বিষয়ে আমরা তত ভালো করতে পারি।

প্রোগ্রামিং করতে গণিতের আসলে সরাসরি প্রয়োগ করতে হয় না। এমন কি প্রোগ্রামিং ভালো ভাবে না জেনেও সফটওয়্যার, ওয়েব, মোবাইল অ্যাপ ইত্যাদি নিয়ে কাজ করা যায়। কিন্তু গণিতে ভালো হলে প্রোগ্রামিং এ ভালো করার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। কারণ মস্তিষ্কের যে অংশ দিয়ে আমরা অংক করি, প্রোগ্রামিং করতেও একই অংশ সাহায্য করে। আর প্রোগ্রামিং এ ভালো করলে নিজ সেক্টরে সেরা হওয়া যায়।

উপরে আমি লিখেছি গণিত বা প্রোগ্রামিং ভালো ভাবে না জেনেও এসব নিয়ে কাজ করা যায়। কাজ করা আর ভালো ভাবে করার মধ্যে একটু পার্থ্যক্য রয়েছে। এ জন্যই একই জবের জন্য এক এক জনের সেলারি এক এক রকম। দেখা যাবে যে আপনার থেকে বয়সে ছোট কেউ আপনার থেকে বেশি সেলারি পাচ্ছে। কারণ? প্রোগ্রামিং এর খুঁটি নাটি তার আয়ত্তে। আর আপনি হয়তো আউটপুট দেখেই খুশি।

আপনি কোন কারণে আগে গণিতে সময় কম দিয়েছেন এর মানে এই না যে আপনার সব শেষ। সব মাত্র শুরু। আমি আপনি এখনো যথেষ্ট তরুণ। আর তরুণরা যে কোন কিছুই শিখতে পারে। তরুণের সংজ্ঞা?

Andrew Ng এক প্রশ্নের উত্তরে Quoraতে লিখছিল ১০০ বছরের নিচে যে কেউই তরুণ। একদিন পত্রিকায় দেখলাম জাপানের ৮০ বছরের এক মহিলা নাকি মোবাইল অ্যাপ তৈরি করেছে। অথচ উনার তারুণ্যে মোবাইল বলতেই কিচ্ছু ছিল না।

এখন আপনার যদি কোন বিষয় ভালো লাগে, ঐ বিষয়ে বেশি করে সময় দেওয়া শুরু করুন। ঐ বিষয় নিয়ে পড়ালেখা, প্র্যাকটিস শুরু করুন। প্রোগ্রামিং ভালো লাগে? প্রোগ্রামিং করা শুরু করুন। এরপর যদি দেখেন এখানে ভালো করতে গণিতের কোন বিষয় জানা দরকার হয়, ঐ বিষয়ের উপর একটা কোর্স করে ফেলুন অনলাইনে। আগেই চিন্তা করার দরকার নেই কি লাগবে না লাগবে। শেখার জন্য এখনই সর্বোচ্চ সময়। 🙂

প্রোগ্রামিং বা কম্পিউটার সাইন্স এখন বিশাল একটা ফিল্ড। এক ফিল্ডে কাজ করতে এক ধরনের ম্যাথের দরকার হয়। তো ব্যাসিক যে জিনিস গুলো সবাইকে জানা উচিত, সেগুলো হচ্ছেঃ

  • স্কুল কলেজে পড়ানো বীজগণিত এবং জ্যামিতি 
  • বুলিয়ান অ্যালজেব্রা
  • গ্রাফ থিওরি
  • লিনিয়ার অ্যালজেব্রা ইত্যাদি। 

এছাড়া  ক্যালকুলাস এবং Probability and Statistics সম্পর্কে জানে থাকলে কাজে দিবে। কোথায় থেকে শেখা যাবে তাই তো?

অনলাইনে গণিত শেখার কোর্সের অভাব নেই। ইউটিউবে যে কোন টপিক্স লিখে সার্চ করলে দারুণ সব ভিডিও পাওয়া যায়।  খান একাডেমী দারুণ। এই ছাড়া এই লিঙ্কটা দেখতে পারেনঃ

 

প্রোগ্রামিং করতে গণিত এর বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে ভালো ধারণা অবশ্যই কাজে দিবে। কিন্তু এর মানে এই না যে গণিত না জানলে প্রোগ্রামিং শুরু করা যাবে না। প্রোগ্রামিং শুরু করার পর গণিতের যে সব বিষয় গুলো জানা দরকার, সেগুলো আস্তে আস্তে জানা যাবে। সবাই এই ভাবেই শিখে। প্যারালালি শিখতে হবে। একটা শিখে আরেকটা শিখব, এভাবে কখনোই শেখা হবে না।

1 thought on “প্রোগ্রামিং করতে গণিত ভীতি”

Leave a Reply