নিজে নিজেই করুন এসি সার্ভিসিং

অলরেডি গরমকাল শুরু হয়ে গিয়েছে। অনেকেই এসি চালানো শুরু করেছেন। রুম ঠাণ্ডা রাখতে এবং বিদ্যুৎ বিল সাশ্রয় করতে নিয়মিত এসি সার্ভিসিং করতে হয়। এমনকি নিয়মিত সার্ভিস না করলে এসি দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। সার্ভিসিং করতে হয়তো আমরা অনেকেই টেকনিশিয়ানের সাহায্য নেই। তবে ব্যাসিক সার্ভিসিং নিজে নিজেই করে নিতে পারি। এই ব্যাসিক সার্ভিসিং বলতে এসি থেকে ধুলাবালি পরিষ্কার করা। এসির এয়ার ফিল্টারে অনেক ধুলাবালি জমা হয়। এই ধুলা বালি পরিষ্কার না করলে এসি রুম ঠিক মত ঠাণ্ডা করতে পারে না। আবার রুম ঠিক মত ঠাণ্ডা করতে না পারলে বেশিক্ষণ ধরে এসি চলতে থাকে এবং বিদ্যুৎ বিল বেশি আসে। এমনকি ধুলাবালি বেশি জমে গেলে এসি থেকে পানি পড়ে অথবা বরফ জমে যায়। এসিরও ক্ষতি হয়। অথচ সর্বোচ্চ পাঁচ মিনিট লাগে এই ব্যাসিক সার্ভিসিং করতে।

আমরা বাসাবাড়িতে সাধারণত স্প্লিট এসি ব্যবহার করি। আর এই স্প্লিট এসি সার্ভিস করা খুবি সহজ। প্রায় সব গুলো এসির ইনডোর অংশ একই রকম ভাবেই সেট করা থাকে। ফ্রন্ট অংশ খুলে সাধারণত ব্যাসিক সার্ভিসিং করতে হয়। আর এর জন্য আলাদা কোন টুলের দরকার হয় না। সব কাজ হাতেই করা যায়। এসি তৈরি করার সময় ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানি এটা মাথায় রেখেই ঐভাবে জিনিস গুলো ডিজাইন করে থাকে। সামনের অংশের কভারটা খোলা সহজ। সাধারণ দুই পাশে ধরে হাত দিয়ে হালকা একটু টান দিলেই খুলে আসে। যে ব্র্যান্ডেরই হোক না কেন, নিচের ছবির মত একটা অংশ থাকার কথা। সেখানে ধরে হালকা টান দিলেই উপড়ের কভার খুলে আসবে। পুরাপুরি খুলবে না। একটু খোলার পর উপরের দিকে ধাক্কা দিলে আর নিচের দিকে নেমে আসবে না, উপড়ে আটকে থাকবে। তখন বাকি কাজ করা যাবে।

কিছু কিছু ব্র্যান্ডের ক্ষেত্রে দুই পাশের পরিবর্তে সামনের দিকে থাকে খোলার অপশনটি। একটু দেখলেই বুঝতে পারবেন। খোলার পর দেখব এয়ার ফিল্টার গুলো। কেউ যদি রিসেন্টলি সার্ভিসিং করে না থাকেন, দেখবেন এখানে ধুলার স্তর জমে আছে। সাধারণত দুইটা ফিল্টার থাকে এখানে। মূলত এই এয়ার ফিল্টার গুলো পরিষ্কার করতে হবে। তার জন্য প্রথমে এগুলো খুল নিতে হবে।

 

এয়ার ফিল্টার খোলার জন্য হালকা উপরের দিকে ধাক্কা দিয়ে এরপর নিচের দিকে আস্তে করে টান দিলেই এগুলো খুলে আসবে। কিভাবে খুলতে হবে, তার সাইন দেওয়া থাকবে। যেমন এখানে লক্ষ্য করলে দেখব উপরের দিকে ধাক্কা দিয়ে খোলার সাইন দেওয়া আছে।

 

 

 

এবার এই এয়ার ফিল্টার গুলো পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে। পুশ সাওয়ার দিয়ে পানি মারলে ময়লা গুলো বের হয়ে যাবে। এরপর পানি ঝরিয়ে আবার এনে ফিট করলেই কাজ শেষ। এয়ার ফিল্টার বের করতে আমরা নিচের দিকে টান দিয়ে বের করেছি। ফিট করার সময় নিচের দিক থেকে উপরের দিকে আস্তে ধাক্কা দিলে ফিট হবে। এরপর এসির উপরের কাভারটা নিচু করে হালকা চাপ দিলেই ফিট হয়ে যাবে।

এছাড়া কেউ চাইলে একটা ব্রাশ নিয়ে কুলিং প্যানেলটা আস্তে আস্তে ক্লিন করতে পারেন। এই ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে যেন কুলিং প্যানেলের পাত গুলো বাঁকা না হয়ে যায়। এই তো! সিম্পল কাজ। ইউটিউবে অনেক ভিডিও রয়েছে। প্রথমবার নিজে নিজে সার্ভিস করার পূর্বে দুই একটা ভিডিও দেখে নিলে আররেকটু বেশি কনফিডেন্স পাবেন। কাজ করতেও সহজ হবে। আমি সাজেস্ট করব মাসে অন্তত একবার নিজে নিজে এই সার্ভিসিং টুকু করে নিবেন। নিজেই পার্থক্যটা টের পাবেন। বেশির ভাগ স্প্লিট এসিই এমন। ভিন্নতা দেখতে পেলে অবশ্যই ইউটিউবে ঐ মডেল লিখে সার্চ করে দেখে নিবেন কিভাবে এয়ার ফিল্টার খুলতে হবে।

স্প্লিট এয়ারের বাহিরের অংশ অনেক ক্ষেত্রেই আমাদের নাগালের বাহিরে থাকে। কারো যদি বাহিরের ইউনিট নাগালের মধ্যে থাকে, তাহলে কুলিং পাইপ গুলো পানি দিয়ে পরিষ্কার করতে পারেন। নাগালের বাহিরে থাকলে যদি বুঝতে পারেন বেশি ময়লা হয়ে গিয়েছে, তাহলে টেকনিশিয়ানের সাহায্য নিয়ে পরিষ্কার করে নিবেন।

Leave a Reply