বিনামূলে অনলাইনে নিজের একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করা

নিজের ভাবনা গুলো, নিজের আইডিয়া গুলো সবারই লিখে রাখা উচিত। এ ছাড়া যারা একটু আধটু লিখতে পছন্দ করেন, তাদের উচিত নিজের লেখা গুলো কোথাও প্রকাশ করে রাখা। খাতা কলমে বা নিজের হার্ড ডিস্কে রাখলে যে কোন সময়ই হারিয়ে যেতে পারে। অনলাইনে কোন ওয়েব সাইটে প্রকাশ করে রাখলে যে কোন সময়ই সেগুলো পাওয়া যাবে। এক সময় যখন অনেক বুড়ো হয়ে যাবেন, নিজের একটু আধটু লেখা গুলো, নিজের ভাবনা গুলো পড়তে তখন অনেক ভালো লাগবে। লিখে রাখতে পারেন কোথাও ঘুরতে গেলে সেই ভ্রমণের গল্প। লিখে রাখতে পারেন বন্ধুত্বের গল্প। কয়েক বছর পর নিজের লেখা পড়ার যে অনুভূতি, তা ভাষায় প্রকাশ করার মত না।

 

ফ্রিতে অনেক গুলো ওয়েব সাইটেই নিজের ব্লগ তৈরি করা যায়। এর মধ্যে জনপ্রিয় হচ্ছে wordpress.com। এটিতে যে সফটওয়ারটি ব্যবহার করা হয়, তা হচ্ছে WordPress। পৃথিবীতে যত গুলো ওয়েব সাইট রয়েছে তার প্রায় ২৭% ওয়েব সাইট এই ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি। অনেক অনেক বেশি। আমার এই ওয়েবসাইটটিও ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি। wordpress.com এ আপনি নিজের জন্য ফ্রিতে একটা ওয়েব সাইট তৈরি করতে পারেন। তার জন্য আপনি যে কোন নাম ব্যবহার করতে পারেন। যেমন আপনার নাম যদি Donald Trump হয়, তাহলে আপনি donaldtrump.wordpress.com এমন একটা ওয়েব সাইট তৈরি করে নিতে পারেন। যদি না donaldtrump নামে অন্য কেউ wordpress.com এ রেজিস্ট্রেশন না করে। যদি করে ফেলে, তাহলে আপনাকে অন্য যে কোন কীওয়ার্ড ব্যবহার করতে হবে।

 

wordpress.com এ গিয়ে  Get Started বাটনে ক্লিক করলে নিচের মত অপশন পাবেন।

 

ওয়ার্ডপ্রেসে ব্লগের পাশা পাশি আপনার কম্পানির জন্য ওয়েবসাইট বা অনলাইন স্টোর ও তৈরি করা যায়। আমরা তৈরি করব একটা ব্লগ। তাই Start with a Blog এ ক্লিক করব।

এর পরের স্টেপে আমাদের থিম সিলেক্ট করতে বলবে। থিম হচ্ছে সাইটটি কেমন দেখাবে, তা। এখানে যে কোন থিম আপনি সিলেক্ট করতে পারেন। আপনি এখন থিম সিলেক্ট করার পর পরে যে কোন সময় পরিবর্তন করতে পারবেন। ইচ্ছে করলে Skip ও করতে পারেন এ স্টেপ।

 

এখানে আপনার ব্লগের এড্রেস দিতে হবে। আপনি যদি আপনার নাম এড্রেস হিসেবে দিতে চান, তাহলে এখানে আপনার নাম লিখতে পারেন। এরপর ওয়ার্ডপ্রেস আপনাকে অপশন দিবে নিচে। আমরা ফ্রিতে ওয়েবসাইট তৈরি করব। তাই ফ্রি সিলেক্ট করে নেক্সট এ ক্লিক করব।

 

 

আপনি চাইলে কিছু বাড়তি সুবিধার জন্য ফ্রি এর পাশাপাশি অন্য কোন প্ল্যান ও নিতে পারেন। আমরা Start with Free সিলেক্ট করব।

 

এরপর আমাদের ইমেইল এড্রেস এবং পাসওয়ার্ড দিতে বলবে। ইমেইল এড্রেস এবং পাসওয়ার্ড দেওয়ার পরই আমাদের জন্য একটা ব্লগ তৈরি করে দিবে।

 

ব্লগ তৈরি পর আপনাকে আপনার ব্লগে নিয়ে যাবে অটোমেটিক। উপরের দিকে Write নামে একটা অপশন পাবেন। ঐখানে ক্লিক করলেই আপনি আপনার ব্লগে লেখা পাবলিশ করা শুরু করতে পারবেন।

 

 

লেখার প্যানেলে অনেক অনেক অপশন রয়েছে। যেমন ইমেজ আপলোড করা, ভিডিও আপলোড করা, লেখার ফরমেটিং সহ আরো অনেক কিছু। নিয়মিত লিখতে থাকলে আপনি নিজেই অনেক গুলো অপশনের সাথে পরিচিত হতে পারবেন। যেমন ইমেজ আপলোড করার পর + আইকনে ক্লিক করলে আপলোড করার অপশন পাবেন।

 

 

এরপর পাবলিশ বাটনে ক্লিক করলে আপনার পোস্টটি পাবলিশ হয়ে যাবে। ওয়ার্ডপ্রেসে অনেক অনেক অপশন রয়েছে। ড্যাসবোর্ডে যেতে হলে wp-admin পেইজে গেলেই ড্যাসবোর্ড পেয়ে যাবেন। যেমন আপনার ওয়েবসাইট যদি donaldtrump.wordpress.com হয়, তাহলে ড্যাসবোর্ডের ঠিকানা হবে donaldtrump.wordpress.com/wp-admin।  এরপর সেখান থেকে আপনি আপনার সাইট ইচ্ছে মত কাস্টোমাইজ করতে পারবেন।

 

সব গুলো পোস্ট দেখতে চাইলে ড্যাসবোর্ড থেকে Posts> All Post এ ক্লিক করে পাবেন। 

 

আপনি চাইলে আপনার সাইটের থিম যে কোন সময় পরিবর্তন করতে পারবেন। তার জন্য ড্যাসবোর্ড থেকে Appearance > Themes অপশনে যেতে হবে।

ঐখানে অনেক গুলো থিম দেখতে পাবেন। আপনার পছন্দের থিমের উপর মাউস নিয়ে Activate বাটনে ক্লিক করলেই থিম এক্টিভেট হয়ে যাবে।

 

এখন অনেকেই হয়তো চাইবেন না যে আপনার পোস্ট সবাই দেখুক। আপনি চাইলে আপনার ওয়েবসাইট প্রাইভেট করে রাখতে পারেন। তার জন্য ড্যাশবোর্ড থেকে Settings > Reading অপশন এ যেতে হবে। সেখান থেকে Site Visibility অপশন আপনি পরিবর্তন করে প্রাইভেট করে রাখতে পারবেন। আবার ইচ্ছে করলে যে কোন পোস্টে পাসওয়ার্ড দিয়েও রাখতে পারেন।

এখানে অল্প কিছু অপশনের কথা লিখেছি। আরো অনেক অনেক অপশন রয়েছে। এগুলো আস্তে আস্তে নিজেই জানতে পারবেন। অনলাইনে নিজের অস্তিত্বকে জানান দিন। শুভ কামনা 🙂

4 thoughts on “বিনামূলে অনলাইনে নিজের একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করা

  1. ভাইয়া woardpress e category bosai kibabe…..ex..apnar site er dan pase “blog er bisoy guli” title e je category bosano hoisa erokam babe

Leave a Reply