বিভিন্ন প্রকার কফি নিয়ে বিস্তারিত

কফি আমি খুব পছন্দ করি। ভাবলাম কফি সম্পর্কে যা জানি, তা লিখে ফেলি। প্রথমে লিখি কফিশপে যে সব কফি পাওয়া যায়, সে গুলো নিয়ে। যেমন Americano, Cappuccino, Latte, Espresso, Machiato, Hazelnut, Mocha ইত্যাদি। এগুলোর মূল উপাদান হচ্ছে এসপ্রেসো। এসপ্রেসোর সাথে দুধ বা অন্যান্য কিছু মিক্স করার পরিমাপের উপর বিভিন্ন নাম।

কফিশপে সাধারণত এসপ্রেসো মেশিন দিয়ে এস্প্রেসো তৈরি করা হয়। কফি বীন গুড়া করার পর তা এস্প্রেসো মেশিনের পোর্টাফিল্টারে রাখা হয়। এরপর মূলত পানির বাষ্প ঐ কফি গুঁড়ার মধ্যে দিয়ে যাওয়ার পর যা বের হয়, তাই হচ্ছে এসপ্রেসো (Espresso)। এটাকে বলে ব্রু (brew) করা।

ব্রু রেশিও

টেস্ট অনেকখানি নির্ভর করেব্রু রেশিও এর উপর । 1:1 ব্রু রেশিও মানে হচ্ছে যে পরিমাণ কফি গুড়া পোর্টারফিল্টারে দিব, ততটুকু পরিমাণ এসপ্রেসো আউটপুট পাবো। যেমন ২০ গ্রাম কফি গুড়ো হলে ২০ গ্রাম এসপ্রেসো আউটপুট পাবো। 1:2 মানে হচ্ছে ২০ গ্রাম কফি গুড়ো হলে ৪০ গ্রাম এসপ্রেসো আউটপুট পাবো, ইত্যাদি।

ব্রু টাইম

টাইম অনেক গুরুত্বপূর্ণ। ব্রু করতে কত সময় নিব, তার উপর ও টেস্ট নির্ভর করে। এছাড়া ব্রু টাইমের সাথে কপি গুঁড়ার সম্পর্ক রয়েছে। গুড়োর সাইজ, মানে বেশি গুড়ো না কি কম গুড়ো (দানার সাইজ), তার উপর ও কফির টেস্ট নির্ভর করে। বেশি গুড়ো হলে ব্রু টাইম বেশি লাগতে পারে। আবার কফিটার টেস্ট এক রকম হবে। একটু কড়া হবে। গুড়া যদি কম হয়, মানে একটু দানা দানা হয় তাহলে ব্রু টাইম কম লাগবে। কফিটাও লাইট হবে।

ব্রু টেম্পারেচার

ট্রেম্পারেচারের উপর ও নির্ভর করে কফির স্বাধ। সাধারণত ২০০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে ব্রু করা হয়। এর থেকে কম বেশি হলেও টেস্ট অন্য রকম হতে পারে।

এসপ্রেসো মেশিন

Espresso

যারা খুব কড়া কফি পছন্দ করে, তারা এই এসপ্রেসো সরাসরি পান করে। এই এসপ্রেসো সাথে বিভিন্ন উপাদানের মিশ্রণে তৈরি হয় ভিন্ন ভিন্ন ফ্লেভারের কফি।

Americano

অ্যামেরিকানো মানে হচ্ছে ব্ল্যাক কফি। এসপ্রেসোর সাথে নিজের পছন্দ মত পানি এবং চিনি মিক্স করে পান করে। সাধারণত কফিশপ গুলোতে 1:2 পরিমাণ পানি মিক্স করে। ২০ গ্রাম এসপ্রেসো হলে ৪০ গ্রাম পানি। যদিও এটা নির্ভর করে কফিশপের উপর।

Macchiato

মাকিয়াতো তে এসপ্রেসোর সাথে অল্প একটু মিল্ক ফোম ব্যবহার করে। ইতাইলান মাকিয়াটো মানে হচ্ছে মার্ক। নাম থেকেই বোঝা যায় এটা কি। অল্প একটু ফোমের মার্ক! আর কিছু না। যদিও অনেকে ফোমের পাশা পাশি 2:1 রেশিওতে মিল্ক ব্যবহার করে। মানে ২০ গ্রাম এসপ্রেসো হলে ১০ গ্রাম মিল্ক।

Cappuccino

ক্যাপাচিনোতে সাধারণত দুধ এবং এসপ্রেসো রেশিও থাকে 1:2। মানে ২০ গ্রাম এসপ্রেসো হলে ৪০ গ্রাম দুধ। সাথে কিছু ফোম থাকতে পারে।

Latte

লাতে তে দুধের পরিমাণ বেশি থাকে। সাধারণত 1:3+ রেশিও। ২০ গ্রাম এসপ্রেসো হলে ৬০ গ্রাম বা তার বেশি দুধ।

Mocha

মকা আসলে ক্যাপাচিনো বা লাতের সাথে চকলেটের মিশ্রণ। 1:1:1 রেশিও বা নিজের পছন্দ মত রেশিওতে এস্প্রেসো, দুধ এবং চকলেট মিক্স করলেই হলো ক্যাফে মকা। এক এক কফিশপ এক এক রেশিও ব্যবহার করে। আর তাই এক এক কফিশপের স্বাদ ও ভিন্ন ভিন্ন হয়।

এই ফ্লেভার গুলোর সাথে গরম দুধের পরিবর্তে ঠাণ্ডা দুধ এবং বরপ মিক্স করলে হয় Iced Cappuccino, Iced Latte, Iced Mocha ইত্যাদি। কফিশফ গুলোতে সাধারণত কফির সাথে সুগার মিক্স করে দেয় না। সুগারটা নিজের পছন্দ মত মিক্স করতে হয়। একটু সামান্য সুগার বেশি বা কম হলে অনেকের কাছে খেতে ভালো লাগে না। সবচেয়ে ভালো হয় যদি চিনি ছাড়াই খাওয়া যায়।

এগুলো ছাড়াও আরো হাজার রকমের কফি ফ্লেভার রয়েছে। আইসক্রিম, হ্যাজেলনাট, ক্যারামেল, ভ্যানিলা, স্টোবেরি, ব্র্যান্ডি, হুইস্কি সহ অনেক কিছুই এসপ্রেসোর সাথে মিক্স করে সার্ভ করে। এই মিক্সের উপর নির্ভর করে এক একটার নাম হয় এক এক রকম।

এতক্ষণ লিখলাম মূলত এসপ্রেসো নিয়ে। এবার কফি বীন বা কফি গাছ সম্পর্কে লেখা যাক। দুই ধরণের কফি পাওয়া যায়। একটা হচ্ছে অ্যারাবিকা আরেকটাক হচ্ছে রোবাস্তা।

অ্যারাবিকা

অ্যারাবিকা কফি গুলোর টেস্ট ভালো। রোবাস্তার সাথে তুলনা করলে এগুলোতে ক্যাফেইনের পরিমাণ কম। অ্যারাবিকা কফির দাম ও বেশি। কারণ এগুলো উৎপাদন খরচ বেশি। পোকামাকড় সহজেই এই অ্যারাবিকা গাছ গুলোকে আক্রমণ করে।

রোবাস্তা

রোবাস্তা কফি গুলো একটু বেশি তিতা এবং ক্যাফেইনের পরিমাণ ও বেশি। রোবাস্তা কফির দাম তুলনা মূলক কম।

কফি রোস্ট

কফি বিচি সাধারণত রোস্ট (ভাজা) করা হয় গুড়ো করার পূর্বে। বেশি রোস্ট করলে কফি বিচি গুলো কালও হয়। কেউ পছন্দ করে কম রোস্ট করা বা লাইট কফি বিচি, কেউ পছন্দ করে মিডিয়াম, কেউ পছন্দ করে ডার্ক। এই রোস্ট করার উপর কফির ফ্লেভার নির্ভর করে। যদিও ক্যাফেইনের পরিমাণ একই থাকে।

🙂

এসপ্রেসো মেশিন ছাড়াও কফি বা এসপ্রেসো তৈরি করা

গুড়ো কফি বীন এনে বাসায় কফি তৈরি করা যায়। খুব সহজে ফিল্টারের মাধ্যমে অথবা ফ্রেঞ্চ প্রেসের মাধ্যমে। ফিল্টারটা মূলত কাগজের তৈরি। ফিল্টার না থাকলে ফিল্টার হিসেবে কাপড় ব্যবহার করা যেতে পারে। আর ফ্রেঞ্চ প্রেস বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। ছোট্ট একটা মেশিন। দাম খুব একটা বেশি না।

ফিল্টার ব্যবহার করলে একটু বেশি গুড়া করতে হয়। এরপর কফি গুড়া ফিল্টারের উপর রেখে গরম পানি আস্তে আস্তে ঢাললে কফি নিচে পড়বে। এরপর নিজের পছন্দ মত দুধ চিনি মিক্স করে খাওয়া যেতে পারে।

ফ্রেঞ্চ প্রেস সিম্পল একটা কফি মেশিন। কফি গুড়ো এবং পানি ঢেলে কিছুক্ষণ রেখে দিতে হবে। এরপর একটা প্রেস করলে কফি গুড়ো থেকে লিকুইড কফি আলাদা হয়ে যায়। সিম্পল। একটু খুঁজলেই ফ্রেঞ্চ প্রেস পাওয়া যাবে। যদি না পেয়ে থাকেন, তাহলে নর্থ এন্ড এর যে কোন ব্রাঞ্চে গেলে ফ্রেঞ্চ প্রেস এবং কফি, দুইটাই নিয়ে আসতে পারবেন। তারা কফি বিচি আপনার সামনে গুড়ো করে দিবে। গুড়ো করে দেওয়ার জন্য বলতে হবে আপনি কিভাবে কফিটা ব্যবহার করবেন। ফিল্টারের জন্য এক রকম গুড়ো করতে হয়, ফ্রেঞ্চ প্রেসের জন্য এক রকম। আর সাধারণত বেশির ভাগ এসপ্রেসো মেশিনের সাথে কফি গুড়ো করার মেশিন থাকে। এসপ্রেসো মেশিন থাকলে শুধু কফি বিচি কিনে আনলেই হবে।

বারিস্তা

কফি এক্সপার্টদের বলা হয় বারিস্তা (Barista)। একজন ভালো বারিস্তা মানে হচ্ছে একজন ভালো আর্টিস্ট। কোন কফি কিভাবে তৈরি করতে হয়, তা জানলেই হয় না। তাপমাত্রা, পরিমাপ, সময় সব কিছু সঠিক ভাবে হলেই কফির টেস্ট ভালো হয়।

ইনট্যান্ট কফি

Nescafe, MacCoffee সহ অনেক ব্র্যান্ডের ইনস্ট্যান্ট কফি পাওয়া যায়। এগুলোও সাধারণত এস্প্রেসো যেভাবে ব্রু করে, সে ভাবেই ব্রু করে। এরপর ব্রু করার পর পানি গুলো শুকিয়ে গুড়ো করে প্যাকেটজাত করে। ফ্রেস ব্রু কফির স্বাধের তুলনায় এগুলো যদিও অত টেস্টি না। ফ্রেস ব্রু করা কফি খাওয়ার পর ইনস্ট্যান্ট কফি খাওয়ার ইচ্ছেও কমে যাবে।

Leave a Reply