প্রোগ্রামার হিসেবে বেড়ে উঠা

প্রায় সবাই প্রথম এমন একটা প্রোগ্রাম লিখি যা কনসোলে Hello world! লেখাটি প্রিন্ট করে। কনসোলে কিছু প্রিন্ট করেই প্রোগ্রামিং এর শুরু। এরপর আমরা যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ ইত্যাদি কিভাবে করে, তার প্রোগ্রাম লিখি।

কিন্তু সত্যিকারের প্রোগ্রামিং শুরু করি যখন লজিক্যাল কোড লিখি, যেমন if else ব্যবহার করে। if else ব্যবহার করে আমরা ছোট ছোট সমস্যা সমাধান শুরু করতে পারি। যেমনঃ

if haveMoney {
eat Biriani.
}else {
eat Porota.
}

if else ব্যবহার করার পর আমারা সব কিছু লজিক্যালি চিন্তা করতে পারি। চারপাশের যা কিছু আছে, সব কিছুকে প্রোগ্রামিং এর মাধ্যমে চিন্তা শুরু করতে পারি। আর চারপাশের সব কিছু কে যদি প্রোগ্রামিং এর মাধ্যমে প্রকাশ করা শুরু করতে পারি, কারো কাছেই প্রোগ্রামিং কঠিন লাগার কথা না। প্রোগ্রামিং অনেক অনেক সহজ মনে হবে।

if else হচ্ছে একটা কন্ট্রোল স্টেটম্যান্ট। এক সময় আমরা দেখব if else দিয়ে সব কিছু সহজে চিন্তা করা যায় না। তখন আবার আমাদের অন্যরকম কন্ট্রোল স্টেটম্যান্ট এর দরকার হবে। তখন আমরা while, for, for each ইত্যাদি সম্পর্কে জানব।

এরপর এক সময় আমরা দেখব আমাদের কিছু ডেটা নিয়ে কাজ করতে হয়। যেমন আমাদের বন্ধুদের তথ্য নিয়ে একটা প্রোগ্রাম তৈরি করব। যেখানে সকল বন্ধুদের তথ্য থাকবে। তখন আবার আমাদের Array বা এমন কিছু কন্টেইনার লাগবে। ডেটা নিয়ে কাজ করতে গেলে দেখা যাবে Array দিয়েও হয় না। তখন ভালো ডেটা স্ট্র্যাকচার সম্পর্কে জানতে হবে। জানতে হবে ডেটাবেজ সম্পর্কে।

এক সময় আমরা দেখব আমরা যে কোড গুলো লিখি, সে কোড গুলো অনেক স্লো কাজ করে। আমাদের প্রোগ্রাম খুব বেশি একটা ফাস্ট না। তখন কিভাবে কোড গুলোকে সুন্দর ভাবে লেখা যায়, আরো সুন্দর ভাবে প্রোগ্রামটাকে সাজাতে হয়, তখন জানব অ্যালগরিদম সম্পর্কে।

আমরা চাইবো আমাদের প্রোগ্রাম নিজ থেকেই কিছু কাজ করে ফেলবে। আমাদের নিজ থেকে কোন ইন্সট্রাকশন ছাড়াই। তখন আমরা জানব আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স সম্পর্কে, মেশিং লার্নিং সম্পর্কে। জানব কিভাবে একটা সিস্টমেকটে ট্রেইন করা যায়।

দেখেন না, আমরা শুরুতেই কিন্তু মেশিং লার্নিং দিয়ে শুরু করি নি। আমরা শুরু করেছি Hello world! দিয়ে। ধাপে ধাপে এক সময় আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স যুক্ত প্রোগ্রাম লিখতে পেরেছি। শুরুতেই যদি আমরা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স যুক্ত প্রোগ্রাম লিখতে চাইতাম, তখন বলতাম, প্রোগ্রামিং আমার জন্য না। প্রোগ্রামিং অনেক কঠিন। আমি খুবি বোকা। প্রোগ্রামিং যারা অনেক অনেক জ্ঞানী, তাদের জন্য। নিজেকে নিজে ছোট ভাবতাম। অথচ জানতামই না, চেষ্টা করলে সবাই জানতে পারে। সবাই বুদ্ধিমান হতে পারে। সবাই যা ইচ্ছে, তাই করতে পারে।

কেউ কেউ বলবে প্রোগ্রামিং কঠিন। যে প্রোগ্রামিং শুরু করতেই ভাববে গুগল তৈরি করে ফেলবে, তার জন্য প্রোগ্রামিং কঠিন। কিন্তু যে প্রথমে একটি ছোট্ট প্রোগ্রাম লিখবে,তারপর যোগ, বিয়োগ, গুণ ভাগের প্রোগ্রাম লিখবে, তারপর তার ক্লাসের জন্য একটা রুটিন অ্যাপ তৈরি করবে, তারপর কিভাবে প্রোগ্রামিং করে কিছু কাজ অটোমেটিক্যালি করে নিতে হয় তা জানবে, তার জন্য প্রোগ্রামিং সহজ। অনেক অনেক সহজ। সে এক সময় জানবে কিভাবে সার্চ ইঞ্জিন তৈরি করতে হয়, জানবে কিভাবে সোশাল নেটওয়ার্ক তৈরি করতে হয়, কিভাবে একটা রোবট তৈরি করতে হয়। সে একদিনে শিখে নি। শুরুতে সেও জানত না। আস্তে আস্তে জেনেছে। দারুণ কিছু যদি করতে ইচ্ছে করে, আজ থেকেই শেখা শুরু করুন। শুভ কামনা, সবার জন্য। 


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *