জীবন এবং সুযোগ

গেম খেলার সময় একটা লাইফ শেষ হলে আরেকটা পাই। প্রথম বার যে ভুল করার কারণে জীবন হারাই, পরের বার ঐ ভুল আর করি না। বাস্তবে এমন হলে দারুণ হতো। বাস্তবে আমাদের একটাই মাত্র জীবন। এটা শেষ হওয়ার পর আরেকটা পাওয়ার সুযোগ নেই।

এই একটা মাত্র জীবনটাকে মন খারাপ করে কাটিয়ে দিব? মানুষ কি ভাববে, এটা ভাবতে ভাবতেই কাটিয়ে দিব? নিজের উপর বিরক্তি প্রকাশ করে প্রতিটা দিন পার করব? আরেক জনের জন্য নিজেকে পরিপূর্ণ করে তুলতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত অপরিপূর্ণ হয়েই শেষ করে দিব? নিজের অবস্থার জন্য চারপাশের সব কিছুকে দোষ দিয়ে বেড়াবো?

নিজের জীবন কেমন হবে, তা অনেকটা কন্ট্রোল করা যায়। সামনের দিন গুলোতে কি হবে, তা হয়তো আমরা জানতে পারি না। কিন্তু সামনে ভালো কিছু হওয়ার সম্ভাবনাকে আমরা বাড়িয়ে দিতে পারি। ভবিষ্যৎ এ নিজেকে কোথায় দেখতে চাই, তা ঠিক করার পর ঐ অনুযায়ী চেষ্টা করলে ঐ জায়গার কাছা কাছি পৌছানো যায়। তার থেকে ভালো জায়গায় পৌছানো যায়। চেষ্টা করত হয়। সাহস রাখতে হয়।

নিজ মুখে একটা হাসি রাখুন। নিজেকে বিশ্বাস করুন। নিজের যা ভালো লাগে, শত খারাপ লাগার মধ্যে থাকলেও ঐ ভালোলাগাটা করার চেষ্টা করুন। নিজের কোন আইডিয়ার পেছনে সময় দিন। একটু একটু করে। তা যদি অন্যদের কাছে পাগলামিও মনে হয়, তাও করুন।

বোরিং লাইফ পার করব না কি সুন্দর কিছু মুহুর্ত তৈরি করব, তা নিজের কাছেই। সাধারণ যা কিছু আমরা করব, তার কোন কিছুর মধ্যেই কোন গল্প নেই। সবাই তাই করে। কেউ কারো সাধারণ গল্প শুনতে আসে না। কিন্তু সাধারণের বাহিরে গিয়ে পাগলামি করাও অসাধারণ।

সাধারণ ভাবে চলতে গেলে মন খারাপ হবে না। কেউ কিছু বলবে না। দিনের পর দিন এমনি এমনি শেষ হয়ে যাবে। কিছু চেষ্টা করতে গেলেই খারাপ সময় আসবে। ব্যর্থ হতে হবে। মন খারাপ হবে। ঐ মন খারাপের সময় মাথায় রাখতে হবে সামনে ভালো কিছু অপেক্ষা করছে। সাহস রাখতে হবে। চেষ্টা করতে হবে। আমাদের একটাই জীবন। এটার সঠিক ব্যবহার করতে হবে। তা আমরা নিজেরা ছাড়া আর কেউ পারবে না।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *