কভিডের মধ্যে ফ্রিল্যান্সিং ও রিমোট জব

কভিডের কারণে প্রায় সবাইকে এখন রিমোট জব করতে হচ্ছে। অনেকেই জব হারিয়েছে, অনেকের স্যালারি কমিয়ে দিচ্ছে, অনেকেই সংশয়ের মধ্যে রয়েছে কখন জানি চাকরিটা চলে যায়। কভিডের প্রথম ধাক্কার কথা বলছি এগুলো। এক বছর পর বাংলাদেশে আবার কি ভয়াবহ ভাবেই না বেড়ে চলছে এর সংক্রমণ। এত কিছুর মধ্যে আমরা কি করতে পারি?

চারপাশে তাকালে দেখতে পাবেন যে যারা ফ্রিল্যান্সিং করত বা রিমোট জব করত, আল্লাহর রহমতে তারা এই কভিডের মধ্যেও ভালো রয়েছে। কারণটা সহজ, তারা আগে থেকেই রিমোট জব করে অভ্যস্ত। আর তাই স্যাল্যারি কমানোর বা জব হারানোর ভয়ের মধ্যে ছিল না।

সবাইকে যে ফ্রিল্যান্সিং বা রিমোট জব করতে হবে এমন না। কিন্তু কভিড এসে শিখিয়ে দিয়েছে যে যে কোন স্কিল যে কোন সময় কাজে লাগতে পারে। এমনকি যারা কখনো ভাবেনি রিমোট জব করবে, তাদেরও রিমোট জব করতে হচ্ছে।

কোন কারণে যদি আপনার চাকরি চলে যায়, বা রিমোট জব করতে ইচ্ছে করে, তাহলে অনলাইনে কাজ খুঁজে নেওয়ার স্কিল আপনার কাজে আসবে।

ফ্রিল্যান্সিং এবং রিমোট জব

অনলাইনে কি কি কাজ করা যায়, তাই তো? যে কোন কাজ, যা দূরে বসে বা কম্পিউটারের মাধ্যমে করা যায়। আপনি যে কাজ করেন, হয়তো তা দিয়েই আপনি ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন।

# কাস্টোমার সাপোর্ট
# ভার্চুয়াল এসিস্টেন
# লেখালেখি বা প্রুপ রিডিং
# ভয়েস দেওয়া এবং এডিটিং
# ভিডিও এডিটিং
# ছবি তোলা বা ছবি এডিটিং
# ডিজাইনিং – হাজার রকমের ডিজানিং রয়েছে।
# একাউন্টিং রিলেটেড যে কোন কাজ
# এক্সেলের যে কোন কাজ
# প্রেজেন্টেশন তৈরি
# ডেটা এনালাইসিস, ডেটা ভিজুয়ালাইজেশন
# প্রোগ্রামিং বা ডেভেলপমেন্ট রিলেটেড জবের তো অভাব নাই! যে কোন একটা ল্যাঙ্গুয়েজ ভালো ভাবে আয়ত্ত করে নিতে পারলেই ভালো জব পেয়ে যাবেন।

কোথায় কাজ পাবেনঃ

আমরা অনেকেই আপওয়ার্ক বা ফাইভারের সাথে পরিচিত। এগুলো ছাড়া হাজার রকমের ওয়েব সাইট আছে যেখানে রিমোট জব বা ফ্রিল্যান্সিং জব পাওয়া যায়। এমনকি চাইলে বিদেশি কোন কোম্পানিতে পিজিক্যালি জব করার চাকরিও খুঁজে প্যাঁতে পারেন। একটু গুগলে সার্চ দিলেই হলো। Best Freelancing marketplace, Best Remote Job Website এমন কিওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করে দেখতে পারেন।

অনলাইনে কাজ করার জন্য সবচেয়ে বেশি যেটা দরকার, তা হচ্ছে ভালো একটা সিভি বা পোর্টফোলিও। রিমোট জব করতে চাইলে লিঙ্কডইনে প্রোফাইলটা সুন্দর করে সাজাতে পারেন। আর যারা প্রোগ্রামিং বা ডেভেলপার হিসেবে কাজ করতে চান, তারা স্ট্যাকওভারফ্লো, গিটহাব এমন সাইট গুলোতে প্রোফাইল ভারি করতে পারেন।

আর যারা একেবারে নতুন, তারা কিছু স্কিল শিখে নিতে পারেন। কম্পিউটারের মাধ্যমে করা যায়, এমন যে কোন কিছু। অনেকেই জিজ্ঞেস করেন কোথায় থেকে শিখবেন। Udemy তে হাজার হাজার কোর্স ফ্রি রয়েছে। ইউটিউবে তো যে কোন বিষয়ের উপরই ভিডিও সিরিজ রয়েছে। আর আইটি রিলেটেড কোর্সের জন্য আমার ভালো লাগে Coursera এবং Udacity। শিখতে শুধু নিজের ইচ্ছে, কম্পিউটার এবং ইন্টারেন্ট লাগে। কম্পিউটার না থাকলে স্মার্টফোন ব্যবহার করেও শেখা যায়। এছাড়া বিভিন্ন টপিক্সের উপর অনেক ফ্রি অ্যাপও রয়েছে। একটু সার্চ করলেই পাওয়া যায়।

অনেকের ভয় পায় ইংরেজিতে কোর্স গুলো তাই। কোন কিছু শিখতে কোর্সের ওয়ার্ড বাই ওয়ার্ড বুঝতে হয় না। মূল বিষয়টা বুঝলেই হয়। এরপর দুই একটা কোর্স দেখতে দেখতে অটোম্যাটিক সব কিছু বুঝা যাবে। শুরু করতে হয়। একেবারে বেশি সমস্যা হলে কাগজ কলম নিয়ে বসে যে শব্দটার অর্থ জানা লাগবে, তা লিখে ফেলতে হবে। একবার লিখলেই হবে। মাঝে মধ্যে সময় পেলে একটু চোখ ভুলিয়ে নিতে হবে। এভাবেই শেখা হয়ে যাবে।

কে জানত কভিড এসে পুরো দুনিয়া উলট পালট করে দিবে? আইটি রিলেটেড স্কিল গুলো শিখে রাখলে অন্তত কিছু করে চলা যাবে। খুব সহজে এগুলোর প্রয়োজনীয়া পুরিয়ে যাচ্ছে না। ইচ্ছে শক্তির দরকার। শেখার ইচ্ছে থাকলে দেখবেন আস্তে আস্তে শেখা হয়ে যাবে। আর শিখে রাখলে যে কোন সময় কাজে লাগবে। আল্লাহ তায়লা আমাদের জন্য জ্ঞানঅর্জন সহজ করে দিক।

رَبِّ زِدْنِي عِلْمًا
রব্বি যিদনি ইলমা
অর্থ- হে আমার পালনকর্তা! আমার জ্ঞান বৃদ্ধি করুন।

ফ্রিল্যান্সিং করা নিয়ে বিস্তারিত একটা লেখা লিখেছি, তা পাওয়া যাবে এখানেঃ ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার জন্য গাইড লাইন।

Leave a Reply