বর্তমানে জ্ঞান অর্জনের সঠিক মাধ্যম হচ্ছে ইন্টারনেট।

ইন্টারনেট-একজন মহা জ্ঞানী শিক্ষক।

কেউ যদি কাউকে উপদেশ দেয় তার বেশির ভাগই হচ্ছে শিখ। আর সবচেয়ে বেশি উপদেশে যদি গণনা করে থাকেন তাহলে পাবেন “শিখ, জ্ঞান অর্জন কর। আর সহচেয়ে প্রাচীন উপদেশও হচ্ছে এই শিখ, জানো। জানার জন্য তোমার সব ব্যয় কর। এখন আর আপনাকে জানার জন্য অনেক কিছু বিসর্জন দিতে হবে না। একটি কম্পিউটার/ট্যাবলয়েড/নেটবুক বা স্মার্টফোন হলেই যথেষ্ট যাথে একটি ইন্টারনেট কানেকশন সহ।

আপনি যদি বলেন আমার কম্পিউটার কেনার সামর্থ্য নেই, তাহলে যে করেই হোক একটা ব্যবস্থা করে কিনে পেলুন একটা। জানেন, একটি কম্পিউটার পড়ালেখার গতি অনেক বাড়িয়ে দিতে পারে? কম্পিউটার যে কত বড় এক বন্ধু, এক শিক্ষক, দিক নির্দেশিকা তা আপনার কল্পনার ও বাহিরে।

আমি তাদের জন্য লিখছি যারা পড়ালেখা করতে চায়। যারা নিজে নিজে কিছু করতে চায়। যারা মনে করে তাদেরকে দিক নির্দেশনা দেওয়ার মত কেউ নেই। আর সত্যি যাদের বড় ভাই, কাকা, মামা নেই যে পথ দেখিয়ে দিবে। হ্যা একটি কম্পিউটার অনেক সাহায্য করবে আপনাকে। ১০-১৫ হাজার টাকা দিয়ে চলার মত একটা কম্পিউটার আপিনি কিনে নিতে পারেন। পরে সামর্থ হলে ভালো মানের কিনবেন। যদি নতুন না কিনতে পারেন তাহলে পুরারন কিনুন। অনেক কিছু দিবে আপনাকে। আপনার জন্য যদি সব কিছু কঠিন মনে হয় তাহলে ভাববেন না যে আপনি একা। উপরের আল্লাহর কাছে চান, আর নিচে গুগলের সাহায্য নিন।। দেখুন কত সহজেই একটা বিষয় শেখা যায়।। শেখার জন্য শিক্ষকের বিকল্প হচ্ছে ইন্টারনেট, এর সঠিক ব্যবহার আপনাকে সব কিছু দিতে পারে। আসলেই সব কিছু যা আপনি এখনও ভাবতেও পারেন নি।।

আপনি যদি ভাবেন যে আপনাকে কেউই পছন্দ করে না, কেউ গুরুত্ত্ব দেয় না, না দিক আপনার তাতে কি? সামনে যাওয়ার চেষ্টা করুন। থামবেন না, একটুও না। আপনার বর্তমান আপনাকে গ্রহন না করলে ভবিশ্যতের দিকে এগিয়ে যান, দ্রুত। আপনার জন্য সুন্দর কিছু অপেক্ষা করছে।

স্বপ্ন দেখতে জানেন? স্বপ্ন দেখার চেষ্টা করুন। যা ভাবা যায় না তাও ভাবুন। না পেলে তাতে কি? জানেন? স্বপ্নের মধ্যে ও কিছু ভেবে বাস্তব থেকে ভালো অনুভূতি পাওয়া যায়। আপনি যদি এমনি ভাবে স্বপ্ন দেখতে না পারেন চেষ্টা করুন। আপনি কি জানেন যারা স্বপ্ন দেখে আসছে তারাই শুধু সফল হয়েছে? আজ তাদেরকেই আমরা স্মরন করি। যারা কোন কিছু চিন্তা করতে পারে না তারা কি গায়েবী ভাবে সফল হবে? আপনার কি ধারনা? তাই আপনি যদি ভালো কিছু চিন্তা করতে পারেন মনে করবেন এটা অনেক বড় একটা গুণ। হ্যা, সত্যি স্বপ্ন দেখা অনেক বড় গুন।

তারা সফল কেন হয়েছে জানেন? তারা সফল হয়েছে কারন স্বপ্ন দেখে তারা একটুও থেমে থাকে নি। তাদের স্বপ্ন গুলো বাস্তবায়নের জন্য তারা চেষ্টা করে গেছেন। আর তাই আজ তারা পৃথিবীর বুকে এখনও টিকে আছেন। আমি জানি আপনিও এমন একজন হতে পারবেন। যার কথা পৃথিবী কোনদিনও ভুলবে না।

আমি তো “বর্তমানে জ্ঞান অর্জনের সঠিক মাধ্যম হচ্ছে ইন্টারনেট” নিয়ে লিখতে চাইছি, কিন্তু কি লিখতে গিয়ে অনেক কথা বলে পেললাম। আজ আমিও সেই প্রাচীন উপদেশটা দিচ্ছি “জ্ঞান অর্জন করুন” জানি না আমার মুখে এটা মানায় কিনা। কিন্তু আমি কি চিন্তা করি জানেন? মন চায় পৃথিবীর সব জ্ঞান আমার ছোট এ মাথায় ঢুকিয়ে দি। পুরো ইন্টারনেটের সকল তথ্য নাকি তিনটে ছোট স্টবেরির সমান। আমার মাথায় কি তিনটা স্টবেরির সমান জায়গা নেই? কিন্তু আপচুস! থাকলেও আমি পারব না সকল তথ্য জানতে। আমি পারি না। আমি কোনদিনও পারবো না, তাই এ ছোট জীবনে যতটুকু পারি আস্তে আস্তে পড়ে যাচ্ছি… কিছু অর্জন করতে পারলে ভালো লাগে। পড়তে পড়তেই মনে হয় আমি এটা লিখতে পারি, তখন মাঝে মাঝে এসে লিখে যাই আপনাদের জন্য। আপনাদের কারো উপকারে আসলে ভালো লাগবে।

আর শেষ কথা, স্বপ্ন দেখুন। সকলের ইচ্ছে গুলো পূরন হোক। -?জাকির![jakir.me]


2 thoughts on “বর্তমানে জ্ঞান অর্জনের সঠিক মাধ্যম হচ্ছে ইন্টারনেট।

  1. জাকির ভাই আপনি ঠিক আমার মনের কথা গুলোই
    বলেছেন। তাই তো আপনার লেখা আমার খুব ভাল লাগে।

  2. স্বপ্ন দেখতে ভয় পাই মাঝে মাঝে; তবুও স্বপ্ন দেখি আমি…।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *