ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার জন্য গাইড লাইন।

কয়েকটি ছোট খাট প্রশ্নের উত্তর নিয়ে আমার এই পোস্ট। যে কয়েকটি প্রশ্ন ফ্রীল্যান্সিং শুরুর আগে যে কারো মনে উদয় হয়। দেখি আমি কি কি বিষয় লিখতে পারি এখানে। তবে একটি লিস্ট করে ফেলি তার আগে। সত্যি বলতে কি, আমি আমার ফ্রীল্যান্সিং নিয়ে দুটি পোস্ট করার পর এ প্রশ্ন গুলোর সম্মুক্ষীন হয়েছি। তার থেকে চিন্তা আসল সব গুলো প্রশ্ন এক করে একটা পোস্ট করার, যেন যারা আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারে না তারাও উপকৃত হয়। তার পর একটা একটা করে বিস্তারিত বলার চেষ্টা করবঃ

  • ফ্রিল্যান্সিং কেন করব।
  • ফ্রিল্যান্সিং সাইট গুলোতে কি কি কাজ করা যায়?
  • আমি কোন কাজ পারি না, আমি কিভাবে ফ্রীল্যান্সিং করব?
  • ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে আমার কোন আইডিয়া নেই। আমি কি করব?
  • আমার কি কি শিখা উচিত?
  • আমি কোন সাইটে কাজ করা শুরু করব?
  • আমি কিভাবে ফ্রীল্যান্সিং শুরু করব।
  • আমি মোটামুটি কাজ পারি, কিন্তু কি করব বুঝতে পারছি না।
  • আমি কাজ পারি, বিড করে যাচ্ছি কিন্তু কাজ পাচ্ছি না।
  • কভার লেটার লেখার নিয়ম
  • টাকা কিভাবে পাবো?

ফ্রিল্যান্সিং কি এবং কেন করব।

আপনার যদি স্বাধীনতা পছন্দ হয়, নিজ বাসায় বা যে কোন স্থান থেকে কাজ করতে ভালো লাগে, তাহলে ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন। ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে কেন করবে, তা নিয়ে বিস্তারিত একটি লেখা লিখেছি। চাকরি করা ছাড়াও সুন্দর আয় করা, স্বাধীন জীবন এবং অন্যান্য।    ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে অনেক কিছুই জানতে পারবেন। নিচের লেখা দুটিও পড়তে পারেন।

 এবার লিখব ফ্রীল্যান্সিং সাইট গুলোতে কি কি কাজ করা যায় তা নিয়ে।

একদম সহজ থেকে শুরু করি, আপনি যা জানেন তা দিয়েই কাজ শুরু করতে পারবেন। লেখা লেখি, ডেটা এন্ট্রি, প্রোগ্রামিং, মার্কেটিং, টাইপিং, ডিজাইনিং, ইমেজ এডিটিং, প্রেজেন্টেশন তৈরি, ডেভেলপমেন্ট, ভার্চুলাল এসিস্ট্যান্ট সহ অনেক কিছু।  নিচে আপওয়ার্কে  কি কি জব পাওয়া যায় তার একটা স্কিনসর্ট। ছবির উপর ক্লিক করলে বড় করে দেখা যাবে। 

upwork job categories

 

এগুলো দেখে একটা ধারনা নেওয়া যাবে অনলাইনে কি কি কাজ পাওয়া যায়, কি ধরনের কাজ পাওয়া যায়। আপনি যদি উপরের যে কোন একটি কাজও পারেন, তাহলে আপনি অনলাইনে কাজ করতে পারবেন। যদিও এ গুলো ছাড়াও আরো অনেক ধরনের কাজ অনলাইনে রয়েছে। আপনাকে তা খুজে নিতে হবে। আপনি যদি এ কাজ গুলোর একটিও ভালো মত না পারেন, তাহলে আপনার কাছে যে বিষয়টা  ভালো লাগে এমন একটা কাজ শিখে নিতে পারেন। তারপর আপনি কাজ শুরু করতে পারেন। কাজ শিখে নিতে বেশি সময় লাগবে না। ভয় পেলে বা শুরু না করলে কিভাবে শিখবেন? আজকের দিনটি  আপনার প্রিয় বিষয়টি শেখা শুরু করার জন্য কি একটি ভালো দিন নয়?

আমি কোন কাজ পারি না, আমি কিভাবে ফ্রীল্যান্সিং করব?

কোন কাজ না জানলে শিখে নিন। যে কোন কিছুই শিখতে পারেন। বা উপরের স্কিনশর্ট থেকে দেখে যে সব বিষয় ভালো লাগে, সে গুলো নিয়ে পড়ালেখা করতে পারেন। এ লেখাটি দেখতে পারেনঃ

একটা কথা কি, মানুষ যা নিয়ে ঘটাঘাটি করে সে দিকেই এক্সপার্ট হয়। কেউ প্রথম দিন ই সফল হয় না। আপনি যদি আজ থেকেই ফ্রিল্যান্সিং শুরু করেন তাহলে আজই না হোক কাল বা এক মাস পর অথবা এক বছর পর এক জন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে পারবেন। আর আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং করতে গিয়ে ধোঁকা খান তাহলে আগামি কাল আপনি ঐসব দিক এড়িয়ে ভালো দিকে যেতে পারবেন। আপনি যদি প্রথাগত চাকরি করতে না চান, তাহলে আজ থেকেই ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে জানা শুরু করুন। এখানে কাজের অভাব নেই। বিষয়ের ও অভাব নেই। আপনি সহযেই আপনার পছন্দের বিষয় নির্বাচন করে সামনে এগুতে পারবেন। অথবা একটা বিষয় নির্বাচন করলেন। তার পর দেখলেন আপনার ভালো লাগে না, আপনি সহজেই অন্য বিষয়ে পরিবর্তন করতে পারবেন। তবে একটা বিষয় কে নির্বাচিত করে সামনে এগুলে ভালো। একটা বিষয় নিয়ে যে যত ঘাটবে সে তত ঐ বিষয় নিয়ে দক্ষ হতে পারবে। সংক্ষেপে বলতে গেলে, আপনি যদি গ্রাফিক্সের কাজ জেনে থাকেন তাহলে চেষ্টা করবেন সব সময় গ্রাফিক্স রিলেটেড কাজ করার জন্য। দক্ষ মানুষের স্থান সব সময়েই উপরের দিকে, এবার তা যে বিষয়েই হোক না কেন। আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে এক জন ফ্রিল্যান্সারকে এক সাথে অনেক কিছুর কাজ করতে হয়। সাজতে হয় ওয়ান ম্যান আর্মি। যাই করুন না কেন, আপনার লক্ষ্য কিন্তু স্থির রাখতে হবে।

আমার কি কি শিখা উচিত?

আগে যে কোন একটা বিষয়ে দক্ষ হতে হবে। এরপর? এরপর অনলাইন মার্কেটপ্লেস গুলতে একটু সময় দিতে হবে। ঘাটাঘাটি করতে হবে। যারা অনেক দিন থেকে কাজ করে, তাদের প্রোফাইল দেখতে হবে। তাদের প্রোফাইল দেকে তাদের প্রোফাইলের মত নিজের প্রোফাইল সাজাতে হবে। এবং ইংরেজীতে একটু দক্ষ হতে হবে। এমন না যে ফ্লুয়েন্টলি আপনাকে কথা বলতে হবে বা লিখতে হবে। অন্তত একটি জব পোস্ট পড়ে কি কি করতে বলছে, কি কি করতে হবে এবং ক্লায়েন্টের সাথে কথা বলার মত ইংরেজী জ্ঞান থাকতে হবে।

 

আমি কোন সাইটে কাজ করা শুরু করব?

আপনি যদি কিছু কাজ জানেন, তাহলে নিচের যেকোন একটি ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট খুলুন। একাউন্ট খুলে ঐ মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে আগে ভালো করে জানুন। প্রত্যেকটা মার্কেটপ্লেস এ নিজের প্রোফাইল সাজাতে হয়। প্রোফাইলে নিজে কি কি কাজ পারি তা যুক্ত করতে হয়। নিজে যেটা পারি, সেটা সত্যি পারি কিনা, তা জন্য অনলাইন পরীক্ষা দিতে হয়। এসব করতে পারলে বুঝতে পারবেন আপনি কাজ করার জন্য উপযুক্ত। এরপর কাজ পাওয়ার জন্য, কাজ করার জন্য বিড করতে থাকুন। যে কাজটি পারবেন বলে মনে হয় তাতে বিড করুন। ক্লায়েন্টকে সুন্দর একটা মেসেজ দিন। কাজ পেতে বেশি সময় লাগবে না। আমি এখানে কিছু মার্কেটপ্লেসের লিঙ্ক দিচ্ছি। এর বাহিরে আরো অনেক গুলো মার্কেটপ্লেস রয়েছে।

 

আমি মোটামুটি কাজ পারি, কিন্তু কি করব বুঝতে পারছি না।।

কাজের জন্য বিড করুন, নিয়মিত করবেন। যে কাজটা আপনি পারবেন বলে আপনি কনফিডেন্ট। যদি না পারেন, তাহলে বিড করার পূর্বে আগে গুগলে সার্চ করে ঐ কাজটি সম্পর্কে আইডিয়া নিন। আপনি শিখে নিতে পারেন। এভাবে শিখতে শিখতে এক্সপার্ট হয়ে যেতে পারবেন। সুন্দর করে যদি আপনি জবের জন্য এপ্লিকেশন করার সময় মেসেজ দিয়ে থাকেন, কেন আপনি কাজটা করতে চান, কিভাবে আপনি কাজটা সম্পুর্ণ করবেন, তা বুঝিয়ে দিলে একটা না একটা এপলিকেশনের রিপ্লাই পাবেনই। আর রিপ্লাতে সাধারনত জিজ্ঞেস করা হয় কখন কাজটি আপনি শুরু করতে পারবেন, কত দিন সময় লাগবে ইত্যাদি। এগুলো সুন্দর মত বুঝিয়ে দিলে ক্লায়েন্ট আপনাকে কাজ দিবে।

কভার লেটার লেখার নিয়ম

আপনি যদি নিয়মিত বিড করে থাকেন, তারপর ও কোন কাজ না পান তাহলে আপনার কভার লেটার টা একটু অন্যরকম ভাবে লেখার চেষ্টা করুন। ক্লায়নেটের জাগায় আপনাকে চিন্তা করুন। কিভাবে একজন এপ্লাই করলে আপনি তাকে হারায় করতেন। আশাকরি কাজ হবে।   সবাই চায় অভিজ্ঞতা। আপনার কভার লেটারে আপনি নিজে শেখার সময় যে কাজ গুলো করেছেন, সেগুলো দিতে পারেন।
কভার লেখার নিয়ম বলতে আসলে কিছু না। বিশাল একটা মেসেজের থেকে সিম্পল, সরাসরি কাজের কথা দিয়ে কভার লেটার লিখলে সহজেই ক্লায়েন্টের আকর্ষন পাওয়া যায়। জব পোস্টটি পড়বেন, এরপর ক্লায়েন্ট কি কোন প্রশ্ন করেছে কিনা, সে গুলো কভার লেটারে উল্ল্যেখ করবেন। আপনার কোন প্রশ্ন আছে কিনা, সে প্রশ্ন করবেন। আপনি কিভাবে কাজটি সম্পুর্ণ করবেন তা লিখবেন। কেন আপনি জবটি কমপ্লিট করতে পারবেন, তা লিখবেন। এভাবেই পারফেক্ট কভার লেটার লিখে ফেলতে পারবেন।। অন্য কাউকে ফলো না করে নিজের মনের থেকে যেটা লিখতে ইচ্ছে করবে তাই লিখবেন কভার লেটারে।
কাজ না করলে অভিজ্ঞতা কিভাবে হবে তাই না? যদি প্রথমে কেউই কাজ দিতে না চায়, তাহলে ফ্রী কাজ করার চেষ্টা করুন। নিচের লেখাটা দয়া করে পড়ুন।

টাকা কিভাবে পাবো?

আশা করি আপনি কাজ পাবেন। যদি কাজ না পান, তাহলে হতাশ হবে না। নতুন কিছু শেখার চেষ্টা করুন নিয়মিত। কাজ পান নাই বলে বসে থাকার কোন মানে হয় না। আর কাজ পেলে কাজ কমপ্লিট করার পর আপনার একাউন্টে টাকা জমা হবে। সেখান থেকে আপনি ব্যাঙ্কে ট্রন্সফার করতে পারবেন।  ওডেস্ক, ইল্যান্স ইত্যাদি ব্যাঙ্ক সাফোর্ট করে। অন্যান্য মার্কেটপ্লেস থেকে আপনি মানিবুকার্স বা এমন কোন সিস্টেমে টাকা আনতে পারবেন। টাকা রুজি করলে দেখবেন হাতে আসার অনেক গুলো পথ পেয়ে যাবেন। কিভাবে টাকা হাতে পাবেন, সে চিন্তা আপাতত না করলেও হবে। সবার আগে কিভাবে একটি জব কমপ্লিট করতে পারবেন, তা নিয়ে কাজ করতে থাকুন। কাজ কমপ্লিট করার পর টাকা ক্লায়েন্ট রিলিজ দেওয়ার পর আপনার মার্কেটপ্লেসের একাউণ্টে জমা হবে। এবং ঐখান থেকে সহজেই অনেক গুলো পথে আপনার নিজের হাতে টাকা নিয়ে আসতে পারবেন। পেপাল নেই, বা আপনার কার্ড নেই, এসব নিয়ে এখন চিন্তা না করলে হবে। এবং এসব নেই বলে কাজ করা বন্ধ করার কোন মানে হয় না।
টাকা হাতে আনার জন্য আপনি মাস্টারকার্ডও ব্যবহার করতে পারেন। আপনাকে কার্ড দিবে। আপনি আপওয়ার্ক বা ফ্রিল্যান্সার  থেকে কার্ডে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন। এবং বাংলাদেশের যে কোন এটিএম বুথ থেকে টাকা তুলতে পারবেন। কার্ডের জন্য ফ্রী আবেদন করার জন্য পেওনিয়ারের সাইটে গিয়ে সাইন আপ করুন। নাম, ঠিকানা, ইমেইল, ইত্যাদি দেওয়ার সম একটু নির্ভুল ভাবে দেওয়ার চেষ্টা করুন। এর পর আপনার ঠিকানায় কার্ড চলে আসবে। ফ্রি কার্ড। পরে যে কোন সময় কার্ডে টাকা ট্রান্সফার করে একটিভ করতে পারবেন। আর একটিভ করার পর আপনি যে কোন মার্কেটপ্লেসে কার্ড যুক্ত করে কার্ডে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

টাকা কি সত্যিই পাবো?

জ্বি, যে কোন কাজ সম্পুর্ণ করলে সত্যিই টাকা পাবেন।
দোয়া করি আপনার ফ্রীল্যান্সিং জীবন অনেক সুন্দর হোক।
এ সম্পর্কিত দুই একটা লেখাঃ

35 thoughts on “ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার জন্য গাইড লাইন।

  1. খুব ভাল লাগল।আমি freelancinনিয়ে খুবexcited.butআমারproblm টা আলাদা।family problmবলতে পারেন।আমিenglishএ ভাল।সে কারনে করতে চায়।butআমার বাবামাcomputerদিতে চাননা।তারা বড় অফিসার বানাতে চান।butআমাকে এটা ভাল লাগেনা।i wish i were a freelancer!i wanna make a freelancing life..but my parents don’t think about that…they don’t belive it,

    1. অফিসার হোন আর যাই হোন সবার আগে তো কম্পিউটার দরকার।
      ফ্রীল্যান্সিং করলে করবেন না করলে সমস্যা নেই। কম্পিউটার ব্যবহার না করা আর ১০০০ বছর পিছিয়ে থাকার মধ্যে আমি কোন পার্থক্য দেখি না। আপনার আব্বু আম্মুকে বুঝিয়ে বলুন কম্পিউটারের কথা।
      তারপর সব কিছু শিখার পর আপনি সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন কি করবেন।

    1. কামাল ভাই আমি নতুন তাই আমার এ সর্ম্পক কোনো বিষয় জানা আমি তা করতে চাই কিন্তু আমি কিছু বুঝি না কি ভাবে করব তা একটু বলবেন ভাই

  2. jakir vhaia ami apnar sate fb te chat koreci…odsk a account khulesi bt profile somporke kicu bujte cina ki j kori?vhai pls help

  3. জাকির ভাই, আমার freelancer হবার খুব খুব ইচ্ছা ! আমি অনেক দিন আগে oDesk এ একটা অ্যাকাউন্ট খুলি সেই অ্যাকাউন্ট টা ৭০% মত হইচে কিন্ততু তারপর টেস্ট চাই যা আমি পারি না ! আর আমার প্রোফাইল ১০০% হচ্ছে না ! এখন আমি কি করবো ? কি ভাবে আমি শুরু করবো ভাই ???? দয়া করে আমাকে একটু পরামর্শ দিলে খুব উপকার পেতাম ভাই ।

  4. ভাই আমি 6 মাস আগে ওডেকসে একাউনট খুলেছি। আমার পরফাইল75% পরযনত কমপিলিট কিনতু 100% করা যাচছে না। চেসটা করে না পেরে আসা ছেরে দিয়েছিলাম। আজ আপনার Blogটি পরে আসার সনচয় হল। এখন কি করলে 100% হবে বা 100% না করেও কি বিড করা যাবে। জানালে উপকৃত হব…

  5. onek din pore abaro Onek Inspire Pelam , IN SHA ALLAH akhon theke valo vabe shuru korbo kaj shikha .
    Onek dhonnobad jakir vai apnake ,abong onek gugutto purno post ata notun & hotash manusder jonne.

  6. ধন্যবাদ,
    আপনার সাহায্যের জ এড্ড্রেস / এফবি এড্ড্রেস দিলে উপকৃত ও খুশি হতাম.

  7. জাকির স্যার আমি বাপ্পি। আমি শুরু করতে চাচ্ছি। তবে আমাকে প্রথমে একটা মার্কেট প্লেসে এ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। এটাই তো?
    স্যার আর একটা বিষয়, বিড করা ব্যাপারটা কি একটু বুঝিয়ে দিবেন। please sir

    1. জ্বি, প্রথমে মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট খুলতে হবে।

      বিড করার ব্যপারটা হচ্ছে একটা মেজেস লেখা। আপনি কিভাবে কাজটি করবেন, আপনি কাজটি কত দিনের মধ্যে কমপ্লিট করতে পারবেন, ইত্যাদি।

  8. ধন্যবাদ জাকির ভাই পোষ্টটি পড়ে খুব ভাল লাগল।

  9. ঠিক সময়ে আমার প্রশ্নের উত্তরগুলো পেয়ে গিয়েছি। অনেক অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া। 🙂

  10. জাকির ভাইয়া অামার অনেক দিনের ইচ্ছা যে অামি freelancer এ কাজ করব।কিন্তু অামার কোন কম্পিউটার নাই।এটা কি ফোনে কাজ করা যায়।

  11. ধন্যবাদ জাকির ভাই পোষ্টটি পড়ে খুব ভাল লাগল।ঠিক সময়ে আমার প্রশ্নের উত্তরগুলো পেয়ে গিয়েছি। অনেক অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া।

  12. আমি ফ্রিল্যান্সিং করতে খুবিই আগ্রহী, আমি গ্রাফিক্স ডিজাইনিং জানি কিন্তু কীভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করব তা বুঝতে পারছি না। আমার ভিতর এখন ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে হতাশা কাজ করছে। আমি এ ব্যাপারে আরো কোর্স করতে চাই কিন্তু কাউকে পাচ্ছি না।

  13. আপনার এই সাইটটি পড়ে আমার মনে হচ্ছে আমি কিছু জানতে পেরেছি।

  14. ভাই আমি একদম নতুন। আমি কিভাবে এই কাজটি করতে পারি আমাকে কি একটু বলবেন।

  15. Hello Zakir,

    Thanks for sharing this article with us. I work at Tamal Anwar’s Academy in Habiganj, Sylhet. We teach how to make website using WordPress and HTML/CSS. I hope you will visit us in Habiganj and observe our work and progress.

    Wish you all the very best for your journey ahead.
    Bye
    Hac

  16. শুভেচ্ছা জানাচ্ছি,

    আমি ইন্সটাফরেক্স কোম্পানির পার্টনার ম্যানেজার।

    আমরা আপনাকে প্রস্তাব জানাতে চাই ইন্সটাফরেক্স পার্টনার প্রোগ্রামে যেখানে আপনি ১.৫ পিপস (১৫ ডলার স্ট্যান্ডার্ড মার্কেট লট থেকে) পাবেন আপনার প্রতিটা গ্রাহক থেকে। গ্রাহকদের থেকে প্রাপ্ত কমিশন আপনার অ্যাকাউন্ট এ জমা হয়ে যাবে যেটা আপনি সহজেই উত্তোলন করতে পাড়বেন। এর জন্য আপনাকে কোন ইনভেস্ট বা ট্রেড করতে হবে না ।

    এখনি আমাদের পার্টনার হয়ে যান এবং পেয়ে যান সকল তথ্য সরঞ্জাম আপনার ওয়েবসাইট এর জন্য অ্যাফিলিয়েট লিংক সহ। আপনি যদি আগ্রহী হন অথবা যদি কোন প্রশ্ন থাকে নিঃসংকোচে আমার সাথে যোগাযোগ করুন, আমরা কৃতার্থ হব আমাদের পরস্পরের লাভ সম্পর্কে আলোচনা করতে । আমাদের এই প্রস্তাব সম্পর্কে আপনার মতামত অবশ্যই আমাকে জানাবেন।

    ধন্যবাদ। অপেক্ষা করছি আপনার আগ্রহ সম্পর্কে জানতে।

  17. bujta parina ki vba agabo??? ak fika versityr pressure xm to legei thake,,,,programming practise korar time paina,ak dika bare tek pressure result valo korta hobe,,tek tek onk depression a vugta hoy,,,apnar suggest gulo suna onk valo lglo,,,but ami amr target a ki vabe agabo bujta parina ,

  18. বিভিন্ন ব্যাক্তি বা প্রতিস্টান টাকার বিনিময়ে কাজ শিখাতে চান। এরা কি সত্যি ই কাজ শেখায় নাকি পুরাটাই ভূয়া। এ ব্যাপারে জানা থাকলে অনুগ্রহ করে আমাকে একটু জানান। ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *