পেপাল ছাড়া ফ্রীল্যান্সিং বা বাংলাদেশ থেকে পেপাল ভেরিফাই করার প্রক্রিয়া

ছোট একটা পোস্ট। তবে নতুন ফ্রীল্যান্সার, যারা সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগে তাদের জন্য দরকারী। আমার নিজের ও ধারনা ছিল পেপাল ছাড়া অনলাইনে কোন আয় করা যায় না বা যাবে না। কিন্তু যখন ফ্রীল্যান্সিং শুরু করলাম তখন দেখলাম পেপাল ছাড়াও অনেক গুলো মাধ্যম রয়েছে অনলাইনে টাকা আদান প্রদান করার জন্য। তার মধ্যে ফ্রীল্যান্সিং এবং ফ্রীল্যান্সার দের জন্য Moneybookers  বেস্ট মনে হলো ( অবশ্যই বাংলাদেশের পরিপেক্ষিতে)  অনেকেরই এখনো ধারনা যে পেপাল ছাড়া ফ্রীল্যান্সিং করা যাবে না বা অনলাইনে রুজি করা যায় না। কিন্তু ধারনাটা পুরোই ভুল। আজকে ফ্রীল্যান্সিং কনফারেন্সে ওডেস্কের ভাইস প্রেসিডেট ম্যাট কুপারকে অনেকেই পেপাল সম্পর্কে প্রশ্ন করছে। তাদের জন্য লিখছি।

পেপাল আমাদের জন্য মূখ্য নয়। আমাদের প্রধান মূখ্য হচ্ছে কাজ পাওয়া, কাজ করা, এবং কাজের শেষে ডলার গুলো আমাদের একাউন্টে জমা হওয়া। যদি আপনার একাউন্টে টাকা জমা করতে পারেন ততদিনে আপনি অনেক গুলো পথ পেয়ে যাবেন টাকা গুলো পকেটে আনার।

আজ আমি বলব কিভাবে পেপাল একাউন্ট ভেরিফাই করবেন। প্রথমেই যে সব ফ্রীল্যান্স সাইট Master Card অফার করে যেমন ওডেস্ক, ইল্যান্স সে গুলোর একটাতে একাউন্ট খুলে নিয়ে মাস্টার কার্ডের জন্য আবেদন করুন। oDesk  দিয়েই আমি করছি। এ জন্য আপনার একাউন্টে কোন টাকা থাকতে হবে না। ১৫-৩০ দিনের মধ্যে আপনি কার্ড আপনার ঠিকানায় পাঠিয়ে দিবে। তার পর আপনার মাস্টার কার্ড একাউন্টে ঢুকে তা পিন কোড দিয়ে একটিভ করুন।

এবার আপনি যদি ইতি মধ্যে কোন কাজ করে টাকা পান তা মাস্টার কার্ডে ট্রান্সফার করুন। প্রথমে ৯ ডলারের মত কেটে নিবে কার্ড একটিভেটের ফী হিসেবে। কার্ড একটিভ হলে আপনি অনেক গুলো সুবিদা উপোভোগ করতে পারবেন। অন্তত বাংলাদেশে আমার মত বলতে পারবেন আমার মাস্টার কার্ড আছে 😛 কারন বাংলাদেশে এলিট মানুষেরাই মাস্টারকার্ডের সুবিদা পায় 😛

আপনার যদি আগে থেকেই Paypal একাউন্ট থাকে তাহলে এ কার্ড দিয়েই আপনার পেপাল একাউন্ট ভেরিফাই করে নিতে পারবেন। যদি না থাকে তাহলে একটি পেপাল একাউন্ট খুলে নিয়ে তা ভেরিফাই করে নিন আপনার মাস্টার কার্ড দিয়ে। এবার মনে হচ্ছে পেপাল জনিত কোন সমস্যা  আপনার  আর থাকবে না। সবার জন্য শুভ কামনা।

Happy Freelancing!


13 thoughts on “পেপাল ছাড়া ফ্রীল্যান্সিং বা বাংলাদেশ থেকে পেপাল ভেরিফাই করার প্রক্রিয়া

    1. আরে মিয়া ব্যালেন্স খালি থাকলে মাষ্টার কার্ড ধুয়ে পানি খাবেন ??

  1. মাষ্টার কার্ড ঘটনা না
    ঘটনা হল কাজ আর কাজের পর ব্যালেন্স, যা আপনি পোষ্টে বলেছেন

  2. ভাই সালাম। আশা করি ভালো আচেন।
    ভাই odesk এ কিভাবে master card আবেদন করব পোস্ট করলে ভাল হই। ভাল তাকবেন।

    1. অনেক সহজ, ওডেস্কে Login করে Wallet এ ক্লিক করুন, এর পর Payment Methods এ ক্লিক করলে Payoneer Debit Card দেখবেন । Add new তে ক্লিক করে আবেদন করুন।

  3. ভাই আগে বলেন পেপাল খুলব যে এটার অফিসিয়াল সাইট এ যেয়ে ইনফর্মেশন গুলো কিভাভে দিতে হবে 🙂

    1. আপনার ইনফরমেশন গুলো দিবেন। আর চিন্তা নেই। বাংলাদেশে সীগ্রয়ী পেপাল আসবে।

  4. একটা কথা কিন্তু বললেন না? পেপাল একাউন্ট ভেরিফাই করার সময় তো ওরা ডাটা চেক করে দেখবে। আমার ও-ডেস্কের কার্ড আছে। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে কিভাবে সম্ভব ভেরিফাই করা? একটু চিন্তা করেন তো? বাংলাদেশ তো সাপোর্ট করে না। পেপালের মূলা ঝুলায় রাখছে আমাদের সামনে, মনে হয় ২০১৫ সালের আগে আসবেনা। যাই হোক প্রসেসটা আরেকটু বিস্তারিত আলোচনা করেন, স্ক্রীনশট দিয়ে করলে আরো ভালো হয়। অপেক্ষায় রইলাম।

  5. মাস্টার কার্ড ছাড়া কি টাকা পাওয়ার অন্য কোনো উপায় নেই???????

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *