ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডেভেলপমেন্ট টিউটোরিয়াল।

শুধু মাত্র এইচটিএমএল, সিএসএস এবং অল্প কিছু পিএইচপি জ্ঞান থাকল যে কেউ ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডেভেলপ করতে পারে। আর এটা অনেক সহজ। ধরে নিলাম আপনার কম্পিউটারে/ওয়েবসাইটে একটা ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করা রয়েছে।

HTML, CSS, কম্পিউটারে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল কিভাবে করতে হয়, এ সব না জানা থাকলে এ ব্লগের ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ক্যাটেগরি থেকে এগুলো সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন। 

 

ওয়ার্ডপ্রেসের থিম ডীরেক্ট্ররিতে myfirsttheme বা ইচ্ছে মত একটা ফোল্ডার তৈরি করুন। আমাদের থিমটি অনেক সিম্পলএকটা থিম হবে যার মধ্যে নিচের অংশ গুলো থাকবে। নিচের ছবিটি দেখুনঃ
theme skeleton

এখানের একটা অংশ আমরা লোড করব এক একটা ফাইল থেকে। যেমন আমাদের থিমে নিচের ফাইল গুলো থাকবেঃ

  • header.php – এ ফাইলে থিমের header অংশ থাকবে।
  • index.php –  এখানে main area অংশ থাকবে।
  • sidebar.php – saidebar অংশ থাকবে এ ফাইলে।
  • footer.php –  footer অংশ থাকবে এ ফাইলে।

আমরা জানি আমাদের সাইটের স্টাইল দেওয়ার জন্য একটা সিএসএস ফাইল দরকার। তাই আমাদের style.css নামে একটা ফাইল ও থাকতে হবে। ওয়ার্ডপ্রেস থিমের নাম এবং অন্যান্য তথ্য থাকে style.css ফাইলে। myfirsttheme অথবা আপনার তৈরি করা ফোল্ডারে উপরের ফাইল গুলো তৈরি করুন।

style.css ফাইলটা যে কোন টেক্সট এডিটর দিয়ে ওপেন করুন। বা  Sublime Text 2 ব্যবহার করতে পারেন।

style.css ফাইলটা এডিট করুন। তারপর নিচের কোড গুলো যুক্ত করে সেভ করুনঃ


/*
Theme Name: My First Theme
Description: This is my first theme
Author: your name
Version: 1.0
*/

আপনার ওয়ার্ডপ্রেস এডমিন প্যানেল থেকে থিম অপশন এ যান। সেখানে দেখবেন আপনার থিম তৈরিঃ
available theme

এখান আপনি Active এ ক্লিক করে আপনার সদ্য তৈরি করা থিমটি একটিভ করতে পারবেন। একটিভ করে সাইটে ফিরে যান। কিছুই দেখতে পাবেন না। কারন আমরা তো কিছুই লিখি নি। তাই না?

আচ্ছা, এবার index.php ফাইলটা এডিট করুন। এর ভেতর যে কোন কিছু লিখুন। যেমনঃ



<h1> Welcome to my first WordPress theme </h1>


এবার সাইটে যান, দেখবেন আপনার সাইটে  Welcome to my first WordPress theme লেখাটি দেখা যাচ্ছে। কোন থিম যখন লোড হয় প্রথম index.php ফাইলটি লোড হয়। এর ভেতর আমরা যা লিখব তাই দেখাবে। কাজের সুবিধের জন্য index.php ফাইলের ভিবিন্ন অংশ বিভিন্ন ফাইলে রাখা হয়।
যেমন একটি সাইটের হেডার অংশ রাখা হয় header.php, footer অংশ রাখা হয় footer.php এবং siderbar এর অংশ রাখা হয় saidebar.php ফাইলে।

আমরা ও একই কাজ করব।

আপনার header.php ফাইলটা এডিট করুন এবং নিচের কোড গুলো লিখুনঃ


<html>
<head>
<title>My first WordPress theme</title>
<link rel="stylesheet" href="<?php echo get_template_directory_uri(); ?>/style.css">
</head>
<body>

<div id="wrapper">

<div id="header">

<h1>Welcome to my first WordPress theme</h1>

</div>


&nbsp;

উপরের সব কোডই পরিচিত হওয়ার কথা। শুধু মাত্র <link rel=”stylesheet” href=”<?php bloginfo(‘stylesheet_url’); ?>”> এ লাইন ছাড়া। বাকি গুলো এইচটিএমএল কোড। আর এ লাইনে আমরা আমাদের style.css ফাইলটি লোড করছি। style.css ফাইল এর লিঙ্ক এর যাগায় <?php bloginfo(‘stylesheet_url’); ?> এটা ব্যবহার করেছি। এটা ওয়ার্ডপ্রেসের একটা ফাংশান যা style.css এর url দিবে আমাদের।

index.php ফাইলটি এডিট করুন। এবং নিচের কোড গুলো লেখুনঃ


<?php get_header(); ?>


<div id="main">

<div id="content">

<h1>Our main Area</h1>

<?php if (have_posts()) : while (have_posts()) : the_post(); ?>

<h1><?php the_title(); ?></h1>


<h4>Posted on <?php the_time('F jS, Y') ?></h4>



<?php the_content(__('(more...)')); ?>


<hr>

<?php endwhile; else: ?>


<?php _e('Sorry, no posts matched your criteria.'); ?>

<?php endif; ?>
</div>


<?php get_sidebar(); ?>

</div>



<div id="clear"></div>


<?php get_footer(); ?>

index.php ফাইলে যা থাকবে তাই তো আমাদের দেখাবে তাই না? তাই এখানে হেডার অংশ  আমরা আলাদা একটা ফাইলে লিখছি। header.php ফাইলে। এ ফাইলটি আমাদের index.php ফাইলে এড করতে হবে। আর header.php ফাইল এড করার জন্য আমরা লিখছি <?php get_header(); ?> যা দিয়ে আমাদের index.php ফাইলে হেডার অংশটি লোড হবে।

এর পর     <h1>Our main Area</h1> এর পরে আমরা কিছু কোড লিখছি। যাকে লুপ বলে। এ কোড গুলো দিয়ে আমাদের পোস্ট গুলোকে কল করছি আমরা।  এটা সম্পর্কে পরে আরেকদিল লিখব। আপনি আরো জানার জন্য গুগলের সাহায্য নিতে পারেন। বা ওয়ার্ডপ্রেস এর এ লেখাটা দেখতে পারেন। 

<?php get_sidebar(); ?> দিয়ে সাইডবার লোড করছি index.php ফাইলে। এবং <?php get_footer(); ?> দিয়ে footer.php ফাইল যুক্ত করছি আমরা। নিচে এ দুই ফাইলের এর ভেতরের কোড গুলো দেওয়া হলো।

sidebar.php ফাইল এডিট করে নিচের কোড গুলো লিখুনঃ



<div id="sidebar">


<h2> Sidebar area</h2>


<h2><?php _e('Categories'); ?></h2>


<ul>
<?php wp_list_cats('sort_column=name&optioncount=1&hierarchical=0'); ?>
</ul>



<h2><?php _e('Archives'); ?></h2>


<ul>
<?php wp_get_archives('type=monthly'); ?>
</ul>

</div>


এখানে আমরা আমাদের ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের Categorie গুলো এবং Archive লোড করছি। বিস্তারিত আস্তে আস্তে জানতে পারবেন। কিভাবে sidebar এ widget যুক্ত করতে হয় সে সম্পর্কেও জানতে পারবেন। এটা খুবি সিম্পল থিম তাই আমরা সিম্পলই রাখতে চাচ্ছি। যেন সহজেই শিখতে পারি।

footer.php ফাইল এডিট করে নিচের কোড গুলো যুক্ত করুনঃ

<div id=”footer”>
<h1>Our footer area</h1>
</div>

</div>

</body>
</html>

এবার সাইটটি লোড করলে উপরের ডেটা গুলো দেখাবে। কিন্তু আমরা এখনো কোন css কোড লিখি নি। তাই সব এমন উলটা পালটা দেখাচ্ছে। style.css ফাইলটি এডিট করুন এবং নিচের কোড গুলো যুক্ত করে দিন। বিদ্রঃ থিমের নাম এবং অন্যান্য লেখার নিচে।


body {
text-align: center;
}

#wrapper {
display: block;
border: 1px #a2a2a2 solid;
width:90%;
margin:0px auto;
}

#header {
border: 2px #a2a2a2 solid;
}

#content {
width: 75%;
border: 2px #a2a2a2 solid;
float: left;
}

#sidebar {
width: 23%;
border: 2px #a2a2a2 solid;
float: right;
}

#clear{
clear: both;
}

#footer {
border: 2px #a2a2a2 solid;
}

.title {
font-size: 11pt;
font-family: verdana;
font-weight: bold;
}

এবার আবার সাইটটি লোড করুন। এবার একটু গোছালো ভাবে সব কিছু দেখতে পাবেন। আপনার সাইটে যদি কিছু পোস্ট থাকে তাহলে কিছুটা নিচের মত দেখতে পাবেন।


wordpress theme

যদিও আপনি যেমনটি চাচ্ছেন তেমন একটি থিম হয় নি। ডেভেলপমেন্ট মানেই হচ্ছে কোন কিছু আস্তে আস্তে তৈরি করা। css এর ব্যবহার যত ভালোভাবে করতে পারবেন থিম তত সুন্দর হবে।

থিমের জন্য আরেকটি প্রয়োজনীও ফাইল হচ্ছে functions.php ফাইল। আমি এ থিমে কোন ফাংশান লিখি নি, তাই এ ফাইলটিও ব্যবহার করিনি।  ওয়ার্ডপ্রেস এর এ ডকটা দেখতে পারেন। Theme Development    কিভাবে কি করতে হবে, কেন করতে হবে সব কিছুর বিস্তারিত দেওয়া রয়েছে। প্রথম প্রথম একটূ কঠিন মনে হবে। আসলে সব কিছু অনেক সহজ।

থিম ডেভেলপ করার সময় থিমটির কোড লেখাকি ঠিক হচ্ছে কি হচ্ছে না এ জন্য একটি প্লাগইন ব্যবহার করতে পারে। Theme-Check দিয়ে ডেভেলপ করার সময় বিভিন্ন ভুল গুলো দেখে ঠিক করে নিতে পারবেন।   Log Deprecated Notices    টাও দেখতে পারেন।

থিম ডেভেলপ করার সময় আপনার সাইটে কিছু স্যাম্পল ডেটা থাকলে ভালো হয়।  নিজে নিজে সব কিছু তৈরি না করে কিছু ডামি ডেটা ইপোর্ট করে নিতে পারেন। তার জন্য এখানে ক্লিক করুন। 

theme-unit-test-data.xml নামক ফাইলটি আপনার কম্পিউটারে সেভ করুন। এবার ওয়ার্ডপ্রেস এর ড্যাসবোর্ড থেকে Tools> Import থেকে ফাইলটি Import করে নিন।

আর এ লিঙ্কটিও দেখতে পারেঃ http://codex.wordpress.org/Theme_Unit_Test

ফিচার ইমেজ যুক্ত করা:

ফিচার ইমেজ যুক্ত করার জন্য আমাদের functions.php ফাইলে নিচের কোড টা যুক্ত করতে হবেঃ

add_theme_support( 'post-thumbnails' ); 

উপরের কোড যুক্ত করলে আমরা আমাদের পোস্টে thumbnail বা ফিচার ইমেজ যুক্ত করার অপশন পাবো। ইমেজ সাইজ কত টুকু হবে, তা আমরা এভাবে বলে দিতে পারিঃ

add_image_size('thumbnail', 150, 150, true);

সার্চ বক্স যুক্ত করাঃ


<form role="search" method="get" id="searchform" class="searchform" action="<?php echo esc_url( home_url( '/' ) ); ?>">
		<input type="text"  value="<?php echo get_search_query(); ?>" name="s" id="s" placeholder="search">
		</form>

 

মেনু যুক্ত করার অপশনঃ

মেনু যুক্ত করার অপশন আমাদের থিমে যুক্ত ক্রুতে চাইলে নিচের কোডটি functions.php যুক্ত করতে হবে।


function register_my_menu() {
  register_nav_menu('primary',__( 'Primary Menu' ));
}
add_action( 'init', 'register_my_menu' );

মেনু গুলো যে কোন জায়গায়, বা হেডারে দেখাতেঃ

<?wp_nav_menu( array( 'theme_location' => 'new-menu', 'container_class' => 'new_menu_class' ) ); ?>

ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট নিয়ে আরো কিছু প্রয়োজনীয় লেখাঃ

 


5 thoughts on “ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডেভেলপমেন্ট টিউটোরিয়াল।

  1. অনেক অনেক অনেক ধন্যবাদ। আমার এ বিষয়ে আগ্রহ আছে। কাজে লাগবে।

  2. ধন্যবাদ ভাই আপনাকে । ভাই ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডিজাইন এর আরও পোস্ট করবেন ।

  3. ভাইয়া আপনার বানানো ওয়ার্ডপ্রেসে ডট অরগ এ কোন থিম থাকলে লিঙ্ক দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *