এসো স্বপ্ন ছুঁই

ইন্টারভিউ বোর্ডে একটা সাধারণ প্রশ্ন হচ্ছে “ ৫/১০ বছর পর তুমি তোমাকে কোথায় দেখতে চাও?”

আমার কাছে স্টুপিড প্রশ্ন মনে হতো। আমি জানি না ইন্টারভিউ বোর্ড কেন জিজ্ঞেস করে। কিন্তু প্রশ্নের উত্তরটি জানা নিজের জন্য খুবি গুরুত্বপূর্ণ।

প্রতিবারই SSC বা HSC পরীক্ষার পর কেউ কেউ আত্মহত্যা করে। স্টুপিড। কারণ তারা উপরের প্রশ্নটির উত্তর জানে না। কোন দিনও ভাবে নি। অবশ্যই SSC পাশ, HSC পাশ বা কোন ইউনিভার্সিটির এডমিশন টেস্টে পাশ করা জীবনের লক্ষ হতে পারে না। এগুলো এক একটা ধাপ মাত্র। দুই একটা ধাপ না পার করলে এমন কিছু হয় না। মাঝে মাঝে দুই একটা ধাপ টপকিয়ে পার হতে হয়।

জীবনের লক্ষ হওয়া উচিত পড়ালেখা করে কি হতে চাই তা। পড়া লেখা ভালো হচ্ছে না? তাহলে এবার নতুন পথ খোজা শুরু পালা। কিভাবে পড়া লেখা না করেই নিজের ঐ লক্ষ্য অর্জন করা যায়।

হ্যাঁ, আমাদের সমাজের পরিপেক্ষিতে পড়ালেখা ছাড়া নিজের কোন স্বপ্ন নিয়ে লেগে থাকা ভালো দেখায় না। এখন যেহেতু পড়া লেখা হচ্ছে না, এখানে তো সময় নষ্ট করার কোন মানে হয় না।

btw, পড়ালেখা বলতে আমি একাডেমিক পড়ালেখা বুঝাচ্ছি। যে কোন লক্ষ্য অর্জনের জন্য ঐ বিষয় সম্পর্কে সব সময়ই জ্ঞান দরকার। তা তুমি একাডেমিক ভাবে না অর্জন করতে পারলে নতুন পথ খুঁজে নাও। স্কুল, কলেজ বা ইউনিভার্সিটির গণ্ডিতে আবর্ধ থাকার কোন মানে হয় না। তোমার একাডেমিক পড়া লেখা ভালো লাগে না, এটাকে পজেটিভলি ভাবো। যেমন আমাদের যাদের একটু বয়স কম, পর্যাপ্ত শক্তি অনুভব করি, তারা সিঁড়ি বেয়ে উঠার ক্ষেত্রে দুই তিনটি ধাপ একত্রে পাড়ি দি। নিজের জীবনকে এ ভাবে চিন্তা করো। মনে করো, তোমার দুই একটা ধাপ না হলে চলবে। সামনে যেতে হবে। লাফিয়ে যাবে না হামাগুড়ি দিয়ে যাবে, তা তোমার ইচ্ছে। অবশ্যই থেমে থাকার কোন মানে হয় না।

হতাশ হয় কারা জানো? যাদের কোন কিছু করার মত থাকে না, তারা। হতাশ হবে তারা, যারা মনে করে HSC বা কোন ভালো ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হওয়াই বড় কিছু। এরপর এক সময় দেখবে কিছুই করার নেই। কিছুই ভালো লাগছে না।

আজকে খারাপ দিন যাচ্ছে? চিন্তা করো না, এমন সবারই যায়। কালকের দিনটি যথেষ্ট ভালো হবে। কালকের চিন্তা করে নেমে পড়ো। নিজেকে ৫ বছর পর বা ১০ বছর পর কোথায় দেখতে চাও, তা নিয়ে কাজ কর। কাজ কর মহৎ কিছুর লক্ষ্যে। জীবনেও হতাশ হবে না। প্রতিটি ব্যর্থতা থেকেই শিক্ষা গ্রহণ করতে পারবে। এক দিন ঠিকই লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবে। হয়তো দেখা যাবে ৫ বছরের জায়গায় ৬ বছর লাগবে। এমনকি ৪ বছর ও লাগতে পারে। থেমে থেকো না। একটুও না। জয় হোক স্বপ্নের 🙂 


2 thoughts on “এসো স্বপ্ন ছুঁই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *